Latest News
শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ।। ১৫ই আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
Home / জাতীয় / কলেজ শিক্ষকের গুলিতে বিএনপিনেতা গুলিবিদ্ধ, প্রভাষক আটক

কলেজ শিক্ষকের গুলিতে বিএনপিনেতা গুলিবিদ্ধ, প্রভাষক আটক

স্টাফ রিপোর্টার :
ঝালকাঠির রাজাপুরে বিরোধীয় জমির সীমানাপ্রাচীর নির্মাণকে কেন্দ্র করে এক কলেজ শিক্ষকের গুলিতে বিএনপিনেতা গুলিবিদ্ধ হয়েছে। রবিবার সকালে উপজেলার মেডিকেল মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধ ব্যক্তির নাম আব্দুল করিম বাবুল মৃধা (৫৭)। তিনি রাজাপুর উপজেলা বিএনপির শ্রম বিষয়ক সম্পাদক। বাবুল মৃধা সাংগর গ্রামের নুরুল হক মৃধার ছেলে। তিনি বর্তমানে মেডিক্যল মোড় এলাকায় বরিশাল-খুলনা বাস কাউন্টার পরিচালনা করেন।
গুরুতর অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার পর পুলিশ দুপুরে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত আলহাজ¦ লালমোন হামিদ মহিলা কলেজের বাংলা প্রভাষক মাহফুজুর রহমানের মেডিক্যাল মোড়ের বাসা থেকে একনালা বন্দুক, এক রাউন্ড তাজাগুলি, ১টি চাকু ও ১টি দেশিয় অস্ত্র (গুপ্তি) উদ্ধার করে। এ ঘটনায় বিকেল সাড়ে তিনটায় রাজাপুর থানায় এসে সেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করেন কলেজ শিক্ষক মাহফুজুর রহমান। মাহফুজ মেডিক্যাল মোড় এলাকার মৃত মমতাজ উদ্দিন আহম্মেদের ছেলে।
পুলিশ ও গুলিবিদ্ধের পরিবার জানায়, বাবুল মৃধাদের সঙ্গে জমি নিয়ে পুরনো বিরোধ রয়েছে প্রভাষক মাহফুজুর রহমানের শ্বশুর মরহুম মোহাম্মদ শাহ আলম জোমাদ্দারের। বিরোধীয় জমিতে মাহফুজুর রহমান শনিবার জোর করে শ্রমিক দিয়ে সীমানাপ্রাচীর নির্মাণ কাজ শুরু করেন। বিষয়টি নিয়ে থানায় অভিযোগ দেন বাবুল মৃধা। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কাজ বন্ধ করে দেয়। কিন্তু আজ রবিবার সকালে নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে আবারো কাজ শুরু করলে বাবুল মৃধা ও তাঁর ছোট ভাই বরকত বাধা দেন। তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে বাবুলকে লক্ষ করে গুলি ছোঁড়ে প্রভাষক মাহফুজুর রহমান। ছড়াগুলি বাবুলের হাত ও পেটের বিভিন্নস্থানে জখম হয়।
রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা সহকারী কনক প্রভা জানান, গুলির আঘাতে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হওয়ায় বাবুলকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশালে পাঠানো হয়েছে।
গুলিবিদ্ধ আব্দুল করিম বাবুল মৃধার ছোট ভাই বরকত মৃধা অভিযোগ করেন, আমাদের জমিতে জোর করে সীমানাপ্রাচীর নির্মাণ করার প্রতিবাদ করায় মাহফুজ গুলি করে। গুলিটি প্রথমে হাতে লাগার পরে পেতে লাগে। ভাগ্যক্রমে আমার ভাই বেঁচে আছেন। মাহফুজ একজন মাদকাসক্ত। তিনি ইয়াবাসহ ইতোপূর্বে গ্রেপ্তার হয়েছেন।
রাজাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত (ওসি) মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, ঘটনার পর অভিযান চালিয়ে একনালা বন্দুক, এক রাউন্ড তাজাগুলি, ১টি চাকু ও ১টি দেশিয় অস্ত্র (গুপ্তি) উদ্ধার করা হয়। ঘটনার পরে বিভিন্ন স্থানে মসাহফুজকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চালানো হয়। পরে বিকেলে থানায় এসে সে সেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করেন। এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ বাবুল মৃধার পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

জনতার কণ্ঠ 24 সংবাদ

পুলিশ সুপার হলেন মাহমুদ হাসান

স্টাফ রিপোর্টার : পুলিশ সুপার হলেন গুণী, দক্ষ ও মেধাবী অফিসার এম এম মাহমুদ হাসান। …