Latest News
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪ ।। ১৫ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Home / জাতীয় / আওয়ামী লীগের শৃঙ্খলা রক্ষার্থে শেখ হাসিনা কঠোর হয়েছেন : আমু

আওয়ামী লীগের শৃঙ্খলা রক্ষার্থে শেখ হাসিনা কঠোর হয়েছেন : আমু

স্টাফ রিপোর্টার :
মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী কোন ব্যক্তিকে আওয়ামী লীগের সদস্য করা যাবে না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের অন্যতম সদস্য ও সাবেক শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। আওয়ামী লীগ এতোদিন এক রকমের চলেছে, এখন দলের শৃঙ্খলা রক্ষার্থে শেখ হাসিনা কঠোর হয়েছেন। উপজেলা নির্বাচনের সময় যারা বিদ্রোহী প্রার্থী ছিলেন তাদের দল থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। বিদ্রোহী প্রার্থীদের পক্ষে এমপি অথবা মন্ত্রী, যারাই কাজ করেছেন, তাদের ব্যাপারেও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। যার যত পাপ, সে অনুযায়ী শাস্তি পাবেন তারা। বুধবার বেলা ১২টায় ঝালকাঠির নলছিটিতে আওয়ামী লীগের নতুন সদস্য সংগ্রহ ও পুরাতন সদস্য নবায়ন কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। পৌরসভা মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে উপজেলা আওয়ামী লীগ।
আওয়ামী লীগের বর্ষিয়ান নেতা আমু বলেন, মাদকাসক্ত কাউকে দলের পদ দেওয়া হবে না। ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কমিটি করার আগে পদপ্রার্থীদের ব্যাপারে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী মাদকের ব্যাপারে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন। মাদক দুর্নীতির বিরুদ্ধে দলের কঠোর অবস্থান পরিস্কার করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। সুতরাং সুষ্ঠু ও সুস্থ পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে।
বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সময় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ওপর নির্মম নির্যাতন করা হয়েছে দাবি করে সাবেক শিল্পমন্ত্রী বলেন, বিএনপির নির্যাতনের কারনে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা অনেকে পঙ্গুত্ব বরণ করেছেন। সেতুলনায় আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে, তাদের গায়ে একটি টোকাও দেয়নি। আওয়ামী লীগ প্রতিহিংসার রাজনীতি করে না।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি তছলিম উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সরদার মো. শাহ আলম, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খান সাইফুল্লাহ পনির ও নলছিটি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ঝালকাঠি জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খান আরিফুর রহমান, সালাহউদ্দিন আহম্মেদ সালেক, নলছিটি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এইচ এম আখতারুজ্জামান বাচ্চু, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ডা. এসকেন্দার আলী খান ও সাধারণ সম্পাদক জনার্ধন দাস।