Latest News
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪ ।। ৭ই বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Home / জাতীয় / কাল বৈশাখী ঝড়ে লণ্ডভণ্ড ঝালকাঠির বিভিন্ন এলাকা: লঞ্চঘাটের পল্টুন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত

কাল বৈশাখী ঝড়ে লণ্ডভণ্ড ঝালকাঠির বিভিন্ন এলাকা: লঞ্চঘাটের পল্টুন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত

মিজানুর রহমান টিটু মো. শাহীন আলম :
ঝালকাঠিতে দুই দফায় কাল বৈশাখী ঝড়ে লণ্ডভণ্ড হয়েছে বিভিন্ন এলাকা। প্রচন্ড ঝড়ো হাওয়ায় লঞ্চঘাটের পল্টুন ছিড়ে সুন্দরবন-১২ লঞ্চসহ ভেসে যায়। গ্যাংওয়ে ও আশেপাশের চারটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ভেঙে নদীতে তলিয়ে গেছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, আজ মঙ্গলবার বেলা পৌনে একটার দিকে কাল বৈশাখী ঝড় শুরু হয়। প্রচন্ড ঝড়ো হাওয়ার ঘরের টিনের চালা ও বিভিন্ন প্রজাতির গাছ উপড়ে পড়ে। বাতাসে লঞ্চঘাটের পল্টুন ছিড়ে যায়। এতে সুন্দরবন-১২ লঞ্চ ও পল্টুনটি নদীতে ভেসে যায়। পরে পল্টুন এলাকার উল্টো দিকে কিস্তাকাঠি নদীর তীরে লঞ্চটি নোঙর করে রাখা হয়। ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয় লঞ্চঘাট এলাকার চারটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও দুটি টিকিট বুকিং অফিস। দ্বিতীয় দফায় বিকেল তিনটার দিকে আবার প্রচন্ড গতিতে কাল বৈশাখী ঝড় শুরু হয়। এতে জেলার নলছিটি ও রাজাপুর উপজেলাতে অর্ধ শতাধিক বিভিন্ন প্রজাতির গাছ উপড়ে পড়ে। উড়ে যায় বসতঘরের চালা। বন্ধ হয়ে যায় বিদ্যুৎ সংযোগ। খবর পেয়ে ঝালকাঠির জেলা প্রশাসক মো. হামিদুল হক, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খান সাইফুল্লাহ পনির ও পৌর মেয়র লিয়াকত আলী তালুকদার লঞ্চঘাট এলাকা পরিদর্শণ করেন।
সুন্দরবন-১২ লঞ্চের মাষ্টার জামাল হোসেন বলেন, প্রচন্ড ঝড়ো হাওয়া শুরু হলে আমি লঞ্চের সুকান ধরে বসি। কিন্তু বাতাসে পল্টুনের শিকল ছিড়ে লঞ্চসহ নদীতে ভেসে যায়। আমি লঞ্চটি পল্টুনসহ নিয়ন্ত্রণে রেখে নদীর ওপারে নিয়ে যাই। ঘাটের গ্যাংওয়ে নদীতে ডুবে গেছে। আমাদের দুটি টিকিট বুকিং কাউন্টার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

কাল বৈশাখী ঝড়ে ক্ষয়-ক্ষতির ছবি :

ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন জেলা প্রশাসক মো. হামিদুল হক, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খান সাইফুল্লাহ পনির ও পৌর মেয়র লিয়াকত আলী তালুকদার।