Latest News
মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪ ।। ১১ই আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Home / আন্তর্জাতিক / ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে হামলার আগে যে গান শুনছিলেন হামলাকারী

ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে হামলার আগে যে গান শুনছিলেন হামলাকারী

ডেস্ক রিপোর্ট : উগ্র ডানপন্থী যুগোস্লাভিয়ার সেনাবাহিনী এবং যুদ্ধাপরাধী রাদোভান কারাদজিচের প্রশংসায় গাওয়া গান শুনছিলেন ক্রাইস্টচার্চের আল নুর মসজিদে হামলাকারী শ্বেতাঙ্গ জঙ্গি। হামলাকারীর ভিডিও ফুটেজ বিশ্লেষণ করে ডেইলি সাবাহ এ তথ্য দিয়েছে।

৩৮ বছর বয়সী ব্রেনটন ট্যারেন্ট নামের এই অস্ট্রেলীয় যুবক মসজিদে ঢোকার আগে ‘ফ্রম বিহাক টু পেট্রোভ্যাক ভিলেজ’ গানটি শুনছিলেন।১৯৯২ থেকে ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত বসনীয় যুদ্ধেরসময় গণহত্যা এলাকা ও সহিংস অঞ্চলে যাওয়ার সময় সার্বীয় সেনারা এই গানটি শুনতেন। যুগোস্লাভিয়ার বিলুপ্তির সময়ও এই গান ব্যাপক ছড়িয়ে পড়ে।যুদ্ধের সময় বসনিয়ার মুসলমানদের পরিকল্পিতভাবে হত্যাকাণ্ডের লক্ষ্যবস্তু বানানো হয়েছে। সার্বিয়ান সেনাবাহিনী ও মিলিশিয়ারা তাদের ওপর জাতিগত নিধন চালায়। গানটিতে বসনীয় মুসলমানদের তুর্কি হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে। যুদ্ধের তৃতীয় পক্ষ ক্রোশীয়দের উস্তাসা হিসেবে উল্লেখ করা হয়।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ফ্যাসিস্ট ক্রোটরা নাৎসি ও ইতালিকে সহায়তা করেছিল। যুগোস্লাভিয়ায় তারা একটি পুতুল সরকার গঠন করেছিল।

বসনিয়া হার্জেগোভিনিয়ার সবচেয়ে পশ্চিমাঞ্চলীয় জেলা বিহাক। আর সার্বিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় গ্রাম হচ্ছে পেট্রোভ্যাক। এভাবে এই গানটিতে সার্বিয়া নিজেদের উগ্রজাতীয়তাবাদী বলে দাবি করে।

যুদ্ধের সময় সার্ব প্রজাতন্ত্রের প্রেসিডেন্ট ছিলেন কারাদজিচ। জাতিগত নিধন, গণহত্যা ও বিভিন্ন মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে তিনি দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। ২০১৬ সালের মার্চে আদালত তাকে ৪০ বছরের কারাদণ্ড দিলে বর্তমানে তিনি কারাগারে রয়েছেন।  (সূত্র : যুগান্তর)