Latest News
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪ ।। ৫ই আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Home / জাতীয় / ঝালকাঠিতে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

ঝালকাঠিতে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

স্টাফ রিপোর্টার :
ঝালকাঠিতে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ সাবধানতায় হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করা হচ্ছে। সরকারি হরচন্দ্র বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ল্যাবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্কার ফরমুলা অনুযায়ী আইসোপ্রাইল, এ্যালকোহল ৭৫.১৫%, হাইড্রোজেন পারঅস্কাইড ৪.১৭% ও গ্লিসারিন ১.৪৫% মিশ্রন দিয়ে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করা হয়। রবিবার ঢাকা থেকে এসব কেমিক্যাল কিনে ল্যাবে তৈরি করছেন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। লাভ ছাড়াই শুধুমাত্র উৎপাদন ব্যায় রেখে স্থানীয়দের মাঝে এসব হ্যান্ড স্যানিটাইজার সরবরাহ করা হবে।
জানা যায়, ঝালকাঠি সরকারি হরচন্দ্র বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় তলার সায়েন্সল্যাবে ৫ হাজার হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরির কাজ করছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। করোনা ভাইরাসের কবল থেকে মুক্ত থাকতে হরচন্দ্র বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষক মো. তৌহিদ হোসেন খান এ উদ্যোগ গ্রহণ করেন। এতে সহযোগিতা করেন ঝালকাঠি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মিজানুর রহমান ও হরচন্দ্র বালিকা বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান শিক্ষক আকতার হোসেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মাসী বিভাগের ছাত্রী আরিফা মীমের নেতৃত্বে শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজের ছাত্র ফেরদৌস আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী দেবলীনা মৌ, বিএম কলেজের ছাত্র তৌফিক আহমেদ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী তন্ময়া, বিএম কলেজের ছাত্রী নুসরাত জাহান ও মিলা আক্তার হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করছেন। তাদের সবার বাড়ি ঝালকাঠি। এই হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করলে করোনা ভাইরাসের জীবানু মুক্ত থাকা যাবে বলেও জানান তারা। এসব হ্যান্ড স্যানিটাইজার মানুষের কাছে পৌছে দেওয়ার জন্য কাজ করবেন বিভিন্ন সেচ্ছাসেবী সংগঠন। করোনা ভাইরাসের জীবানুমুক্ত রাখার জন্য মানবিক কারণে এ হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষক মো. তৌহিদ হোসেন খান। উৎপাদিত পণ্যের কোন ধরনের মুনাফা না নিয়েই শুধুমাত্র কেমিক্যালের জন্য ব্যায় হওয়া খরচ নিয়ে প্রতিটি বোতল ৫০ টাকায় আগ্রহী ব্যাক্তিদের কাছে পৌছে দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি। বাজারে বিক্রি হওয়া সাধারণ হ্যান্ড ওয়াসের চেয়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের তৈরি এই হ্যান্ড স্যানিটাইজার অধিক কার্যকর বলেও দাবি করেন উদ্যোক্তারা।
শিক্ষক মো. তৌহিদ হোসেন খান বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মাসিউটিক্যাল কেমিস্ট্রি ডিপার্টমেন্টের অধ্যাপক ড. মো. শাহ এমরানের পরামর্শে আমাদের প্রাক্তন কিছু শিক্ষার্থী হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করছে। ওরা এ বিষয়ে অভিজ্ঞ। আমরা কোন প্রকার মুনফা না করেই উৎপাদন খরচে হ্যান্ড স্যানিটাইজারগুলো সরবরাহ করবো। প্রথম অবস্থায় এগুলো শহরের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে দেওয়া হবে, তাদের ব্যবহারের জন্য।

জনতার কণ্ঠ 24 সংবাদ

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির ঝালকাঠিতে আহ্বায়ক কমিটি গঠন

স্টাফ রিপোর্টার : একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির ঝালকাঠি জেলা শাখার আহ্বায়ক কমিটি গঠিত হয়েছে। …