Latest News
বুধবার, ২৬ জুন ২০২৪ ।। ১২ই আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Home / খেলাধুলা / নতুন প্রজন্মকে বেশি করে বই পড়তে হবে : ঝালকাঠিতে শিল্পমন্ত্রী

নতুন প্রজন্মকে বেশি করে বই পড়তে হবে : ঝালকাঠিতে শিল্পমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার :
শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, পড়ালেখার পাশাপাশি খেলাধুলা ও শরীরচর্চা মানুষকে নীতিবান ও আদর্শবাদী করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। তাই শিক্ষার্থীদের খেলাধুলা ও শরীরচর্চার প্রতি মনযোগী হতে হবে। সরকার শিক্ষার্থীদের নানা ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দিচ্ছে। বছরের প্রথম দিনই বিনামূল্যে বই তুলে দিচ্ছে। তাই নতুন প্রজন্মকে বেশি করে বই পড়তে হবে। তাদের ভাল মানুষ হতে হবে, এখন এটাই জরুরী বিষয়। আজ শুক্রবার সকাল ১১টায় ঝালকাঠি সরকারি হরচন্দ্র বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী এসব কথা বলেন। বিদ্যালয় মাঠে বেলুন উড়িয়ে প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন শিল্পমন্ত্রী।
বাংলাদেশ উন্নয়নে এগিয়ে যাচ্ছে দাবি করে শিল্পমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির জন্য পায়রা বন্দর ও পদ্মাসেতু নির্মাণ কাজ শুরু করেছেন। এ কাজ সমাপ্ত হলে দক্ষিনাঞ্চল বাংলাদেশ তথা দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় একটি গুরুত্বপূর্ণ অর্থনৈতিক জোনে পরিনত হবে। বিশ্ববাসী এখনই বাংলাদেশকে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। আমরা উন্নয়নশী দেশে উন্নীত হওয়ার গৌরব অর্জন করেছি।
শিল্পমন্ত্রী বলেন, কিন্তু আমাদের দেশের শত্রুরাই উন্নয়ন অগ্রগতি চায় না। তারা আগামী দিনের ভবিষ্যতকে ধংস করে দিতে মাদকের অনুপ্রবেশ ঘটিয়েছে। আগামী প্রজন্মকে বিপদগামী করে দেয়ার হীন ষড়যন্ত্র হচ্ছে, এটা সবাইকে উপলব্ধি করতে হবে। মাদক সেবনকারীরা নিজেরা যেমন ক্ষাতিগ্রস্থ হয় তেমনি তাদের পরিবার, সমাজ এবং জতিকে ক্ষতিগ্রস্থ করে। এটাকে বর্জন, প্রতিরোধ এবং প্রতিহত করতে হবে। আর এ দায়িত্ব তরুণ সমাজ এবং শিক্ষার্থীদেরকেই নিতে হবে।
জেলা প্রশাসক ও বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মো. হামিদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে পুলিশ সুপার মো. জোবায়েদুর রহমান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সরদার মো. শাহ আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খান সাইফুল্লাহ পনির উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সুলতান হোসেন খান ও পৌর মেয়র লিয়াকত আলী তালুকদার বিশেষ অতিথি ছিলেন। অন্যদের মধ্যে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিশ্বনাথ সাহা স্বাগত বক্তব্য রাখেন। বিদ্যালয়ের ৪০টি ইভেন্টে প্রায় দুই শতাধিক ছাত্রী প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়।