Latest News
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪ ।। ৭ই বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Home / জাতীয় / নলছিটিতে মধ্যরাতে সন্তানসহ স্বামী-স্ত্রীকে আটকে ঘরে আগুন দেওয়ার অভিযোগ

নলছিটিতে মধ্যরাতে সন্তানসহ স্বামী-স্ত্রীকে আটকে ঘরে আগুন দেওয়ার অভিযোগ

স্থানীয় প্রতিনিধি :
ঝালকাঠির নলছিটিতে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে মধ্যরাতে সন্তানসহ স্বামী-স্ত্রীকে ঘরের মধ্যে আটকে রেখে আগুন দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার সুবিদপুর ইউনিয়নের গোদণ্ডা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আগুনে গাড়ি চালক হায়দার হাওলাদারের বসতঘরটি আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়।
জানাযায়, গোদণ্ডা গ্রামের সাহাবউদ্দিন হাওলাদারের ছেলে ইউসুফ হাওলাদারের সঙ্গে জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল হায়দার হাওলাদারের। হায়দার ঢাকায় যাত্রীবাহী বাসের চালক। স্ত্রী লাকি বেগম ও তিন সন্তান বাড়িতে বসবাস করেন। ঢাকায় থাকার সুবাদে হায়দারের বসতঘর ও জমি প্রতিবেশী ইউসুফ হাওলাদার দখল করার চেষ্টা করে আসছিল। ৭ মার্চ সকাল ১১ টার দিকে ইউসুফের নেতৃত্বে কয়েকজন যুবক হায়দারের ঘরে প্রবেশ করে। তারা হায়দার ও স্ত্রী লাকি বেগমকে মারধর করে। এ সময় ইউসুফ ও তার লোকজন ঘরে থাকা মালামাল ভাংচুর করে। ঘটনাটি নলছিটি থানার ওসিকে জানানো হয়। এ ব্যাপারে ১২ মার্চ হায়দার ও তার স্ত্রী নলছিটি থানায় মামলা করতে গেলে সুবিদপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান মিমাংসা করার কথা বলে তাদের ফিরিয়ে আনেন।
কিন্তু ওই রাতেই ইউসুফ লোকজন নিয়ে হায়দার ও তার স্ত্রী লাকিকে বেদম মারধর করে। মারধর করে ঘরের মধ্যে তিনটি সন্তান ও স্বামী-স্ত্রীকে আটকিয়ে বাইরে থেকে পেট্রোল দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। দরজা ভেঙে হায়দার ও তাঁর স্ত্রী, সন্তানদের নিয়ে ঘর থেকে বেড়িয়ে চিৎকার দেয়। খবর পেয়ে স্থানীয়রা এসে পানি ঢেলে আগুন নিভিয়ে ফেলে। আগুনে ঘরের আংশিক ক্ষতি হয়।
ক্ষতিগ্রস্ত হায়দার হাওলাদার বলেন, আগুন দেওয়ার পরে প্রতিপক্ষের লোকজন রামদা ও লাঠিসোটা নিয়ে রাতেই উল্টো আমাদের ভয়ভীতি দেখায়। এ ঘটনা নলছিটি থানা পুলিশকে মোবাইলফোনে জানানো হয়েছে।
অভিযুক্ত ইউসুফের বাবা সাহাবউদ্দিন হাওলাদার বলেন, রাতে মারামারির খবর পেয়ে আমি গিয়ে তা থামিয়ে দিয়েছি। হায়দারের ঘরে আমার ছেলে আগুন দেয়নি, তারা নিজেরাই আগুন দিয়ে নাটক সৃষ্টি করেছে।
নলছিটি থানার ওসি (তদন্ত) আবদুল হালিম তালুকদার বলেন, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।