Latest News
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪ ।। ৪ঠা শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Home / জাতীয় / নলছিটিতে সেই করোনা জয়ী মা ছেলেকে সংবর্ধনা

নলছিটিতে সেই করোনা জয়ী মা ছেলেকে সংবর্ধনা

স্টাফ রিপোর্টার :
করোনা আক্রান্ত মাকে বাঁচাতে পিঠে অক্সিজেন সিলিন্ডার বেঁধে নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মোটরসাইকেলে করে হাসপাতাল নিয়ে যাওয়ার ঘটনায় আলোচিত সেই মমতামীয় মা ও ছেলেকে সংবর্ধনা দিয়েছে ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলা প্রশাসন। শনিবার সকাল ১১টায় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের কক্ষে এ সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। মা স্কুল শিক্ষিকা রেহেনা বেগম ও ছেলে কৃষি ব্যাংক কর্মকর্তা জিয়াউল হাসান টিটুর হাতে ক্রেস্ট ও উপহার সামগ্রী তুলে দেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সিদ্দিকুর রহমান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুম্পা সিকদার। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন সেই মা ও ছেলে। বিষয়টি মিডিয়ায় তুলে ধরায় কৃতজ্ঞতা জানান সাংবাদিকদের প্রতি।
গত ৯ এপ্রিল রেহানা বেগমের করোনা শনাক্ত হলে নলছিটির সূর্যপাশা বাড়িতে বসেই চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। ১৭ এপ্রিল দুপুরে শ্বাসকষ্ট বেড়ে যায়। দ্রæততম সময়ের মধ্যে হাসপাতালে ভর্তি করাতে বলেন চিকিৎসকরা। লকডাউনের মধ্যে কোন গাড়ি না পেয়ে সংকটাপন্ন মায়ের জীবন বাঁচাতে মোটরসাইকেলে ছেলে জিয়াউল হাসান টিটু নিজের শরীরে অক্সিজেন সিলিন্ডার বেঁধে অক্সিজেন মাস্ক পরিয়ে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতে নিয়ে ভর্তি করায়। বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে থেকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ছবি তুলে এক পুলিশ সদস্য ফেসবুকে আপলোড করলে তা ভাইরাল হয়ে যায়। হাসপাতালে মায়ের সেবাযত্ম করেছেন দুই ছেলে জিয়াউল হাসান টিটু ও রাকিবুল হাসান ইভান। ৬ দিন চিকিৎসা শেষে সুস্থ অবস্থায় মাকে নিয়ে ২৩ এপ্রিল সকালে বাড়ি ফেরেন তাঁরা। মা সুস্থ হলেও করোনা আক্রান্ত হয়ে পড়েন টিটু। ২৪ এপ্রিল নলছিটি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরীক্ষায় তাঁর করোনা শনাক্ত হয়। ১৫ দিন বাড়িতে আইসোলেশনে থেকে ৯ মে সুস্থ হয় সে। এ ঘটনা নিয়ে দেশ ও বিদেশের মিডিয়ায় সংবাদ প্রচার হয়। সেই মা ও ছেলেকে সংবর্ধনা দিলেন উপজেলা প্রশাসন। অনুষ্ঠানে ঝালকাঠি প্রেসক্লাবের সহসাধারণ সম্পাদক কে এম সবুজ, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক অলোক সাহা, ঝালকাঠি রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি আল আমিন তালুকদার ও নলছিটি প্রেসক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক মিলন কান্তি দাস, সাংবাদিক মিজানুর রহমান, শরীফুল ইসলাম পলাশ, মশিউর রহমান ও ঈসমাইল হোসেন উপস্থিত ছিলেন।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে শিক্ষিকা রেহেনা বেগম বলেন,আমি প্রতি বছর বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠানে সবসময় বাবা-মায়ের দিকে খেয়াল রাখবে। হয়তো সেই উপদেশটা আল্লাহতায়ালা আমার ছেলেদের ওপর কবুল করেছেন। আমার ছেলেরা যেভাবে আমাকে বাঁচাতে আপ্রাণ চেষ্টা করেছেন, আশা করবো সব বাবা-মায়ের সন্তান এমনিভাবে কাজ করে যাবে; সন্তানদের কাছে বাবা-মায়ের এটাই প্রত্যাশা। আমার সন্তানদের জন্য দোয়া করবেন সবাই।
জিয়াউল হাসান টিটু বলেন, মায়ের প্রতি আমি যেটা করেছি, সেটাই হওয়া উচিত; এর ব্যতিক্রম হওয়ার কোন প্রশ্নই আসে না। মা বাবা সন্তানের জন্য একটি রহমত। আমার বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাকিম মোল্লা বেঁচে নেই। মা আমাদের আগলে রেখেছেন। তাকে নিয়েই আমাদের তিন ভাইয়ের জীবন। মায়ের সুস্থতা ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি। সংবর্ধনা দেওয়ায় তিনি উপজেলা প্রশাসনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুম্পা সিকদার বলেন, একজন মায়ের প্রতি যে তাঁর ভালবাসা সেটা আমাকে সত্যিই অভিভূত করেছে। মা ছেলেকে সংবর্ধনা দিয়ে আমরা গর্বিত মনে করছি। মায়ের প্রতি ভালোবাসায় শরিক হতে পেরে আমরা আনন্দিত। আমি নিজেও দুই সন্তানের মা, সব কিছু ছাড়িয়ে আমি একজন মা এটা ভাতবেই গর্ববোধ করি। তাই বাবা-মায়ের প্রতি সন্তানের সম্মান যেন এভাবে থাকে।
উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, টিটু ও তাঁর পরিবারকে আমি অনেক আগে থেকেই চিনি। ওর বাবা আমার খুবই ঘনিষ্ঠ ছিলেন। ছেলেদের বাবা-মায়ের প্রতি কর্তব্যবোধ রয়েছে। আমি ওদের নিয়ে গর্ব করি।

জনতার কণ্ঠ 24 সংবাদ

নলছিটিতে চোর সন্দেহে যুবককে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার : ঝালকাঠির নলছিটিতে চোর সন্দেহে রিয়াজ ফকির (২৪) নামে এক যুবককে গণপিটুনি দিয়ে …