Latest News
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪ ।। ১৫ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Home / জাতীয় / সাংবাদিক সবুজের ওপর হামলায় তিনজনের নামে মামলা

সাংবাদিক সবুজের ওপর হামলায় তিনজনের নামে মামলা

স্টাফ রিপোর্টার :
ঝালকাঠিতে সাংবাদিক কে এম সবুজের ওপর সন্ত্রাসীরা হামলার ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে। শনিবার রাতে কে এম সবুজ বাদী হয়ে ঝালকাঠি থানায় তিনজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো তিন-চারজনের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করে। মামলা নম্বর-১১। শনিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে প্রেস ক্লাবের সামনে থেকে ধরে নিয়ে সাংবাদিক কে এম সবুজকে মারধর করা হয়। কে এম সবুজ ঝালকাঠি প্রেস ক্লাবের সহসাধারণ সম্পাদক এবং কালের কণ্ঠ, ও এনটিভির জেলা প্রতিনিধি। এদিকে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন ঝালকাঠির সাংবাদিকরা। ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন ঝালকাঠি প্রেস ক্লাবের সভাপতি কাজী খলিলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মানিক রায়সহ সকল সদস্যরা। এছাড়াও নলছিটি প্রেস ক্লাবের সভাপতি এনায়েত করিম, সাধারণ সম্পাদক এইচ এম আখতারুজ্জামান বাচ্চু, রাজাপুর প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি বারেক ফরাজী, কাঁঠালিয়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি কাজল সিকদার ও সাধারণ সম্পাদক মাসুদউল আলমসহ বিভিন্ন, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ মামলার আসামীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান।
জানা যায়, ঝালকাঠিতে মাদক বিক্রি ও সেবনকারীদের নিয়ে বিভিন্ন সময় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করেন সাংবাদিক কে এম সবুজ। পুলিশ মাদক বিক্রেতা ও সেবনকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়। ঝালকাঠি থেকে মাদক নির্মূলের ঘোষণা দেয় জেলা পুলিশ। এতে সাংবাদিক কে এম সবুজের ওপর ক্ষিপ্ত হয় মাদক বিক্রেতা, সেবনকারী ও স্থানীয় সন্ত্রাসীরা। কয়েক দিনধরে ফোন করে তাঁরা সবুজকে ঝালকাঠি ছাড়া করার হুমকি দেয়।
শনিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে সন্ত্রাসী ও মাদকসেবী মায়েজ হোসেন (৪২), তারিকুল ইসলাম অপু (৩০) ও কাজী মারুফ হোসেন ইরানসহ আরো তিন-চার জন প্রেস ক্লাবের সামনে থেকে কে এম সবুজকে টেনেহিঁচড়ে ধরে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে হত্যার হুমকি দেয় তারা। এর প্রতিবাদ করলে অপু হত্যার উদ্দেশ্যে কে এম সবুজের গলা টিপে ধরে। মায়েজ এসে কিল, ঘুষি ও থাপ্পর দেয় এবং ইরান বুকে ও শরীরের বিভিন্নস্থানে ঘুষি ও লাথি দিয়ে আঘাত করে। কে এম সবুজের চিৎকার শুনে প্রেস ক্লাবের সভাপতি কাজী খলিলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মানিক রায়, সাবেক সাধারণ সম্পাদক হেমায়েত উদ্দিন হিমুসহ সদস্যরা ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে মাদকসেবী ও সন্ত্রাসীদের হাত থেকে তাকে রক্ষা করে।
ঝালকাঠি থানার ওসি শোনিত কুমার গায়েন বলেন, শনিবার রাতে মামলাটি লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।