Latest News
রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪ ।। ২রা আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Home / আন্তর্জাতিক / পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবসে পতাকা উত্তোলন

পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবসে পতাকা উত্তোলন

ডেস্ক রিপোর্ট :
পাকিস্তান জাতির ৭৬তম স্বাধীনতা দিবস বার্ষিকী উপলক্ষে আজ সকালে ঢাকায় পাকিস্তান হাইকমিশনে পতাকা উত্তোলন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশে নিযুক্ত পাকিস্তানের হাইকমিশনার জনাব ইমরান আহমেদ সিদ্দিকী চ্যান্সারিতে জাতীয় সঙ্গীতের সুরে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে বসবাসরত পাকিস্তানি কমিউনিটির সদস্য, স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মী এবং হাইকমিশনের কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়।
তাদের বার্তায়, পাকিস্তানের নেতৃবৃন্দ এই শুভ উপলক্ষে জাতিকে অভিনন্দন জানিয়ে পাকিস্তানের প্রতিষ্ঠাতা পিতাদের আত্মত্যাগের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। তারা জাতির পিতা কায়েদ-ই-আজম মোহাম্মদ আলী জিন্নাহর স্বপ্ন অনুযায়ী পাকিস্তানকে রূপান্তর করার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন। তারা দেশবাসীকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে পাকিস্তানের অগ্রগতি ও উন্নয়নের জন্য কাজ করার আহ্বান জানান। পাকিস্তানের নেতৃবৃন্দ কয়েক দশক ধরে ভারতীয় নৃশংসতার মুখোমুখি ভারত কতৃক অবৈধভাবে অধিকৃত জম্মু ও কাশ্মীরের (আইআইওজেকে) নিপীড়িত জনগণের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেন । তারা কাশ্মীরিদের ন্যায়সঙ্গত সংগ্রামের প্রতি পাকিস্তানের অটল রাজনৈতিক, নৈতিক ও কূটনৈতিক সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করেন।
হাইকমিশনার এই শুভ উপলক্ষে বাংলাদেশ ও ভুটানে পাকিস্তানি সম্প্রদায়কে অভিনন্দন জানিয়ে জাতীয় দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরেন। পাকিস্তানী নেতৃবৃন্দের বার্তা পুনরাবৃত্তি করে, তিনি বলেন এই দিনটি সমস্ত পাকিস্তানিদের জন্য আমাদের পূর্বপুরুষদের কতৃক অবিস্বরনীয় সংগ্রামের একটি স্মারক, যার লক্ষ্য ছিল একটি সার্বভৌম স্বদেশ প্রতিষ্ঠা করা, যেখানে আমরা আমাদের যাপিত জীবনে ধর্মীয়, সাংস্কৃতিক এবং সামাজিক স্বাধীনতা উপভোগ করতে পারব।
আমাদের পূর্বপুরুষদের ত্যাগের প্রতি সম্মান জানিয়ে জনাব সিদ্দিকী কবি-দার্শনিক আল্লামা মুহাম্মদ ইকবালের দৃষ্টিভঙ্গির তাৎপর্য এবং কায়েদে আজম মোহাম্মদ আলী জিন্নাহর নীতির তাৎপর্য তুলে ধরেন, যিনি পাকিস্তানকে একটি প্রগতিশীল ও মধ্যপন্থী কল্যাণ রাষ্ট্র হিসেবে কল্পনা করেছিলেন।
অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের স্বাধীনতার ঐতিহাসিক সংগ্রামে অনুধাবনে সুযোগ প্রদানের লক্ষ্যে, পাকিস্তান আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা পিতা ও বিশিষ্ট নেতাদের দুর্লভ আলোকচিত্র প্রদর্শনীরও আয়োজন করা হয়। পাকিস্তান, এর জনগণের মঙ্গল এবং ভারতীয় দখলদারিত্ব থেকে আইআইওজেকের জনগণের মুক্তির জন্য বিশেষ প্রার্থনা করা হয়।

জনতার কণ্ঠ 24 সংবাদ

পাকিস্তান হাইকমিশন স্যার সৈয়দ কর্নার উদ্বোধন

ডেস্ক রিপোর্ট : ঢাকাস্থ পাকিস্তান হাইকমিশন আজ চ্যান্সারিতে সৈয়দ কর্নারের উদ্বোধন করেছে, যেটি স্যার সৈয়দ …