Latest News
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪ ।। ৪ঠা শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Home / আন্তর্জাতিক / ঢাকাস্থ পাকিস্তান হাইকমিশন প্রথম মিয়া সুলতান খান দাবা টুর্নামেন্টের আয়োজন করে

ঢাকাস্থ পাকিস্তান হাইকমিশন প্রথম মিয়া সুলতান খান দাবা টুর্নামেন্টের আয়োজন করে

ডেস্ক রিপোর্ট : ঢাকাস্থ পাকিস্তান হাইকমিশন, হাই কমিশন প্রাঙ্গনে প্রথম মিয়া সুলতান খান দাবা টুর্নামেন্টের আয়োজন করে। বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশন টুর্নামেন্টেটি আয়োজনে সার্বিক সহযোগিতা করেছে। দাবা খেলার অন্যতম সেরা খেলোয়াড় মিয়া সুলতান খানের দক্ষতা, কৌশল এবং সাফল্য উদযাপনে এই টুর্নামেন্টির আয়োজন করা হয়। তিনবারের ব্রিটিশ দাবা চ্যাম্পিয়নশিপ বিজয়ী পাকিস্তানের একমাত্র গ্র্যান্ডমাস্টার মিয়া সুলতান খান (প্রয়াত), আধুনিক সময়ের অন্যতম শ্রেষ্ঠ সহজাত খেলোয়াড় হিসেবে স্বীকৃত ছিলেন, যিনি বিশ্ব দাবা সম্প্রদায়ে এক অমোঘ চিহ্ন রেখে গেছেন।

টুর্নামেন্টে কূটনৈতিক সম্প্রদায়, সরকারী ও বেসরকারী সংস্থার লোকজন, শিক্ষার্থী এবং সাধারণ জনগণ সহ বিভিন্ন ব্যাকগ্রাউন্ডের ১৮০ জন দাবা খেলোয়াড়ের অংশগ্রহণে করে, যা বাংলাদেশে খেলাটির জনপ্রিয়তা প্রমাণ করে।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশন এবং দক্ষিণ এশিয়ান দাবা কাউন্সিলের সভাপতি ডাঃ বেনজীর আহমেদ । বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শাহাব উদ্দিন শামীম, গ্র্যান্ড মাস্টার নিয়াজ মুর্শেদ এবং বাংলাদেশের প্রথম আন্তর্জাতিক মাস্টার খেলোয়াড় রানী হামিদ।
চীনের রাষ্ট্রদূত জনাব ইয়াও ওয়েন, ফিলিপাইনের রাষ্ট্রদূত জনাব টিটো এল আউসান জুনিয়র, ইতালির রাষ্ট্রদূত জনাব আন্তোনিও অ্যালেসান্দ্রো, শ্রীলঙ্কার হাইকমিশনার জনাব ধর্মপাল ওয়েরাক্কোদি, মিশরীয় রাষ্ট্রদূত জনাব ওমর মোহি এলদিন আহমেদ ফাহমিসহ ঢাকাস্থ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতরা এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।
টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন হন মোহাম্মদ মিনহাজ উদ্দিন এবং রানার আপ হন জিয়া তাহসিন তাজওয়ার । মেনন রেজা নীর এবং মোঃ আবু হানিফ যথাক্রমে তৃতীয় এবং চতুর্থ স্থান অধিকার করেন।
বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সভাপতি ডঃ বেনজির আহমেদ, এবং পাকিস্তান হাইকমিশনার সৈয়দ আহমেদ মারুফ অংশগ্রহণকারীদের একনিষ্ঠাতা ও দক্ষতার প্রশংসা প্রকাশ করে টুর্নামেন্টের সেরা পারফরমারদের ট্রফি এবং নগদ অর্থ পুরস্কার প্রদান করেন।
পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে ডঃ বেনজির আহমেদ বাংলাদেশের দাবা খেলোয়াড়দেরকে এবং কূটনৈতিক সম্প্রদায়কে একে অপরের সাথে সংযোগ স্থাপনে এই চমৎকার সুযোগ প্রদানে পাকিস্তান হাইকমিশনের মহৎ উদ্যোগের প্রশংসা করেন। “ইভেন্টটি বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের দাবা সম্প্রদায় এবং বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্প্রদায়ের মধ্যে ইতিবাচক স্পন্দন সৃষ্টি করবে” বলে মত দেন ডঃ বেনজির আহমেদ এবং সেইসাথে পাকিস্থান হাইকমিশনের ভবিষ্যতের যে কোনো পরিকল্পনায় বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের অব্যাহত সমর্থনের আশ্বাস দেন।
সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে পাকিস্তানের হাইকমিশনার সৈয়দ আহমেদ মারুফ টুর্নামেন্টটি সফলভাবে আয়োজনে মূল্যবান সহায়তার জন্য বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি খেলাধুলার চেতনায় মানুষে মানুষের যোগাযোগ বৃদ্ধিতে , সীমান্ত বাধা অতিক্রমে খেলাধুলার তাৎপর্যের তুলে ধরেন । তিনি বলেন, এই টুর্নামেন্টের উদ্দেশ্য হল মিয়া সুলতান খানের সাফল্য উদযাপন করা এবং বাংলাদেশের দাবা উত্সাহীদেরকে এবং কূটনৈতিক সম্প্রদায়কে একটি সুন্দর আয়োজনে একত্রিত করা।
টুর্নামেন্টের উতসাহব্যঞ্জক অংশগ্রহণের কথা তুলে ধরে হাইকমিশনার মারুফ বলেন অনুষ্ঠানটি পারস্পরিক শ্রদ্ধা ও সহযোগিতার এক শক্তিশালী মাধ্যম হিসেবে কাজ করেছে, যা সীমান্ত অতিক্রম করে বন্ধুত্বের চেতনাকে উৎসাহিত করে। জনাব মারুফ বলেন “খেলাধুলার মাঝে মানুষকে একত্রিত করার, পারস্পরিক বোঝাপড়া বৃদ্ধিতে এবং জাতিভেদ ও সীমানা পেরিয়ে দীর্ঘস্থায়ী বন্ধুত্বকে লালন করার এক অপরিমেয় শক্তি রয়েছে “। তিনি আশা প্রকাশ করেন এটি পাকিস্তান ও বাংলাদেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক অগ্রগতির ক্ষেত্রে একটি খুব ভাল পদক্ষেপ হবে।
হাইকমিশনার টুর্নামেন্টের বিজয়ী ও সেরা পারফরমারদের অভিনন্দন জানান এবং অন্যান্য সকল অংশগ্রহণকারীদের পরের বছর দ্বিতীয় মিয়াঁ সুলতান খান টুর্নামেন্টের জন্য অগ্রীম শুভকামনা জ্ঞাপন করেন । অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার জন্য তিনি বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও কূটনীতিক, গ্র্যান্ডমাস্টার, আন্তর্জাতিক মাস্টার এবং মিডিয়া ব্যক্তিদের ধন্যবাদ জানান।

জনতার কণ্ঠ 24 সংবাদ

কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ডুবল দুই নৌকা, নিহত ২৯

অনলাইন ডেস্ক : তিউনিসিয়ার উপকূলে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে অন্তত দুটি নৌকা ডুবে গেছে। এতে অন্তত ২৯ জন …